ইসলামনারী

প্রেমিক দেখি ! আমল শিখি !

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মুতালা’ করছিলাম সকালে ৷ তাকমিলের সাইফুল এসে দরজা নক করল ৷ খুলতেই বলল , হুজুর একটু ছুটি লাগবে ৷
কেন?
নজরুল স্যারের শ্বাশুরী মারা গেছেন ৷ কবর করতে যেতে হবে এখন ৷
এলাকার কবর খননকারী লোক নেই? তুমি ক্লাশ রেখে কেন যাবা?
বলল: স্যার বলেছেন; মরহুমা না কী বেনামাজী লোক দিয়ে কবর করতে নিষেধ করেছিলেন ৷ কোন নামাজী ব্যক্তি যেন তার কবর খনন করে, এই অনুরোধ করেছিলেন ৷ তাই স্যার আমাদেরকে বার বার ডাকছেন ৷
আচ্ছা ! তাই ! তাহলে যাও ৷

তাকে তো সহজভাবে বলে দিলাম যেতে ৷ কিন্তু আমি গভীরভাবে ভাবছিলাম দুটি বিষয় নিয়ে ৷ ১, কবর খননকারী প্রিয় মুসলিম ভাইটিও বেনামাজী হয়? শেষ সফরের বড় আয়োজনকারী ভাইটিও আপন সফরের প্রস্তুতি ভুলে যায়? কিভাবে সম্ভব? কিভাবে সে ভয়তাড়িত হয় না ৷ কিভাবে সে গাফলতের চাদর খুলে উঠে দাঁড়ায় না ৷ আমরা বড়ই আত্মভোলা ৷ মূলত মানুষ যখন তার মাওলা কে ভুলে যায় ৷ তখনই সে আত্বভোলার অভিশপ্ত পথে চলতে থাকে ৷ আল্লাহ তাকে চেতণাহীন পথের পথিক বানিয়ে দেন ৷
হে মুমিনগণ! তোমরা আল্লাহকে ভুলে যাওয়া মানুষের মত হয়ে যেও না ৷ তাহলে আল্লাহ তায়ালা তোমাদেরকে আত্বভোলা বানিয়ে দিবেন ৷[ সূরা হাশর : ১৯ ৷]
দয়াময়! শুধু তুমি মনে থেকো ৷ আর সব ভুলেয়ে দিও! দু:খ নেই ৷ শুধু তোমার ভালোবাসায় দিল আবাদ রেখো ৷ আর সব প্রেম ও ভালোবাসায় পর্দা টেনে দিও ৷ কষ্ট নেই! সর্বত্র তুমিই আপন থেকো ৷ আপন রেখো!

২, মরহুমার পবিত্র ইচ্ছাটির কথাও ভাবছিলাম ৷ তার শেষ বিছানাটি যেন কোন পবিত্র প্রেমিক করে দেয় ৷ আল্লাহর কোন প্রিয় বান্দা যেন বিছিয়ে দেয় ৷ একজন নামাজী ব্যক্তি যেন তার কবরটি খুরে দেয় ৷ বেনামাজী ব্যক্তির কবর করা নিষেধ নয় ৷ কিন্তু পবিত্র প্রেমের আখ্যানতো মিথ্যে নয় ৷ আমার ঈর্ষা হচ্ছিল, তার এই চমৎকার ইচ্ছাটির উপর ৷ হৃদয় থেকে দোয়া করলাম ৷ তার পবিত্র স্বপ্নটির মতোই যেন হয় তার কবরের বসবাস ৷ আসবাব ৷ হাসি আনন্দ! জীবনের ভালোবাসা ও আমলি সৌরভই মৃত্যুর সফরে আলো দেয় ৷ সুগন্ধী দেয় ৷ তার জীবনপুজি অনেক সমৃদ্ধ ও প্রেমপূর্ণ মনে হলো ৷ তাই এভাবে ভাবনার তৌফিক প্রাপ্ত হলো ৷

মনের বাগানে এই আল্লাহপ্রেমিক নামাজপ্রেমিক মায়ের স্বপ্নটিকে রেখে দিলাম ৷ দূর কোন অজানা ভূখণ্ডে যদি শাহাদাতের সুযোগ না হয়, তাহলে আমার শেষ সফরের ক্ষণেও আমি আমার আপনজনদেরকেও বলে যাব , যেন আমার কবরটিও কোন আল্লাহপ্রেমিক নামাজী ব্যক্তি করে দেয় ৷ কিংবা আমার কোন আলেম হাফেজ ছাত্র অথবা মহল্লার কোন জাকিরীন শাকিরীন মুখলিস দায়ীর পবিত্র হাত যেন আমার শেষ বিছানাটি বিছিয়ে দেয় ৷ মনে হয়, সত্যিই এই আয়োজন তৃপ্তিকর হবে ৷ ফেরেশ্তাদের একটু কোমল আচরণ পাবার কোন উসিলা হতেও পারে ৷
দয়াময়! জীবনের সব ঘরে, সব আসরে তুমি ও তোমার ভালোবাসার পাথেয় দাও ৷
তোমার ঠিকানায় রওনা হবার শেষ সফরেও তোমাকে হৃদয় ঘরের প্রদ্বীপ বানাও!
#প্রেমিকেরপ্রদ্বীপ

Facebook Comments

Leave a Reply